Shongkochur Emam

দাগ এসে গেলে

Posted 12 months ago

 1,156 total views,  5 views today

নিয়ম
মরে যাবার বাসনা থেকে দাগ আসে। দাগ এসে গেলে দাঁড়িয়ে যায় জীবন

জটিল রসায়ন
কম বয়সী প্রেমিকা থাকা আর সন্তান থাকা একই বিষয়

জন্মমৌসুম
ধানের স্বকীয় হেলে পড়ার দিনে ঘর ও বাড়ি এক হওয়া উত্তম সময়

অদ্ভুত গণিত
নিজেকে সরিয়ে ফেললে আরও নিজ নিজ স্থির খুঁজে পাওয়া যায়

সত্য
টাউট ছাড়া সমাজ চলে না

দুর্লভ অভাব
নারী ভেতরে দাঁড়িয়ে থাকেন, পুরুষ দরজা খুলবেন বলে। কোনো কোনো পুরুষ ভেতরেই থাকেন। দরজা কাঁদে নিরবে।

আয়না
বহুবার উলঙ্গ হয়ে দেখেছি, মানুষ মূলত উলঙ্গ

যেভাবে দূরে সরিয়ে দেয়া যায়
কারও কাছ থেকে আপনি এত বেশি এত বেশি পাবেন, যার ভারে আপনি চাইলেও তার কাছে যেতে পারবেন না, যতক্ষণে না তিনি এগিয়ে আসছেন

যেভাবে কাছে টানা যায়
আপনি যত বেশি আমাকে অন্ধ ভাববেন, তত-ই আমি নিকটস্থ হবো

অতিদৃষ্টি
জলে দা দিয়ে আঘাত করে দেখি—প্রকৃতপক্ষে ‘বাসনার’ কোনো প্রস্থ নেই

স্বাভাবিক
পুরুষ এলে সংগত কারনেই
বিছানা পরিপাটি হয়

রূপ
শিশুরা বড় হতে হতে একদিন চারদিকে নানারঙ শিশু ছড়িয়ে পড়ে

জীবনানন্দ
অস্তিত্বের নিরিখে শূন্যতা ছুঁয়ে ফেলার নামই জীবন

করুণ হট্টগোল
সব সমীকরণ একই রেখায় মিলিত হয়ে কোরাস করে—জানা যায় সমাপ্তিতে

মোহ
কৃষি থেকে যা দূরে তা প্রেম নয়, মোহ

সকাল-বিকেল
বিন্যাসে উন্মোচন, উন্মোচনে দিন। নির্ণয়ে ওষুধ সেবন, বাকি মৃত্যুজিন।

স্বকীয়তা
আমার কাছেই আমি থাকি। তাই প্লটের আশায় কেউ আগুন লাগাতে পারে না

এটলাস বিটল
কীট কাটে আসবাব, কথা কাটে জিভ। সুতো দিয়ে সুতো কাটে, কোনো কোনো ঈভ।

মায়ের দুঃখ
গর্ভধারণ থেকে প্রসব হওয়া সময়টকু-ই সন্তান। পরে সবাই মানুষ হয়ে যায়

শূন্যানন্দ
স্বাধীনতা এতটা নির্মম!

ভেতর-বাহির
দর্শন কুড়াইতে গিয়া সব মানুষই নিগূঢ়ে নিগূঢ়ে নিজেকে ধর্ষণ করে উৎসে ফেরার তাগিদ অনুভব করে। তাও এক প্রকার দর্শন!

সুন্দর
যারা প্রেমে পড়াতে বাধ্য করেন তার নিশ্চয়ই সুন্দর

জার্নি
নিজেকে স্থির করে যে ঘড়ি গুনে দিচ্ছে নীল সময়, সে জানে উজান বেয়ে আসা মাছের প্রকৃত ভ‚গোল

দুঃখবিষয়ক—এক
দুঃখ ছুঁইতে যাওয়ার চেয়ে দুঃখ পাওয়া অধিকতর ভালো

দুঃখবিষয়ক—দুই
জীবন সুন্দর হয় দুর্লভ দুঃখে

শেখার কৌশল
আলাপ করতে ভালো লাগে না, আলাপ করাইতে ভালো লাগে

ধারাক্রম
সৌষ্ঠব আসে না শ্রেণিতে, শ্রেণি এগিয়ে যায় সৌষ্ঠবে

মুক্তির আয়না
মানুষেরও ডানা আছে—সংবেদ্য ভাষায়—

পার্থক্য
তুমি যাদের তুলতে চাও তারা তোমার উচ্চতা হিসাব করে। যারা তোমাকে ভালোবাসে তারা কিভাবে দাঁড়িয়ে আছো তা জানতে চায়

বোধের রকমফের
নামাজে গেছিলাম। নামাজ জড়িয়ে ধরে দেখি মাবুদ সুন্দর

পরিমাপ
ছুঁতে যাওয়ার বাসনা তীব্রতর হলে অবস্থান নির্ণয় হয়

অনুভুতি
কবিতা লেখার চেয়ে নারীর সেবা করা উত্তম

বেহুদা
পৃথিবীতে কিছু মানুষ আছে—শুধু দুঃখের জন্যই মুখিয়ে থাকে। তাদের কারণ লাগে না

জীবন সুন্দর—এক
স্পেস বললে জীবন ফাঁক করে সম্মান ঢুকে যায়

জীবন সুন্দর—দুই
জীবন হচ্ছে উল্টোদিকের কোলাকুলি। ধরতে হলে ডানাকে আঘাত দিতেই হবে

ইতরামি
তাড়না উঠে গেলে আগ্রহী সংস্কার মাপে

পথছবি
স্কুল পেরিয়ে সাঁতার আঁকলে উজ্জ্বল নিকটে আসে

নিয়ম—দুই
অন্ধকারও এক গোপন আলো হলেও আলো কোনোদিন গোপন অন্ধকার নয়

বোঝা
জীবনের ডাহুক যত দূর উড়ে যায়, ততই দীর্ঘ হয় বহন

ধারণা
চুমু খেতে হলে ভালো মানুষ হতে হবে। ভালো মানুষ ভয় পাই

দেখা
সামাজিক গার্হস্থ্য বিড়াল অন্ধকারে ভালো দেখে

অস্তিত্ব
লোহা আগুন খেয়ে চ্যাপ্টা হওয়ার পরই নিজের কাছে ফিরে যায়

আবহাওয়া
শীতরাত ভেঙে দেখি অসংখ্য শরতের শাঁস

অভিপ্রায়
যে পথ সহজের দিকে—মানুষের ধর্ম তাই হওয়া উচিত

বিষয়: কবিতা, লেখক: শঙ্খচূড় ইমাম

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •